Hathazari Sangbad
হাটহাজারীমঙ্গলবার , ১৮ জুলাই ২০২৩

অ্যাওয়ার্ড অর্জনে সালাউদ্দীন আলীকে দুবাইয়ে গণ সংবর্ধনা

হাটহাজারী সংবাদ ডেস্ক
জুলাই ১৮, ২০২৩ ২:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

এশিয়া, আমেরিকা, আফ্রিকা বিজনেস এন্ড সোশ্যাল ফোরাম কর্তৃক এশিয়া গ্রেটেস্ট ব্র্যান্ড এন্ড লিডার ২০২৩ অ্যাওয়ার্ড অর্জন করাই হাটহাজারী উপজেলার কৃতি সন্তান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সফল তরুণ উদ্যোক্তা এশিয়ান স্পেশালাইজ হসপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লায়ন আলহাজ্ব সালাউদ্দীন আলীকে গণ সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

রোববার (১৬ জুলাই) দুবাই ইন্টারন্যাশনাল সিটিস্থ মদিনা রেস্টুরেন্টের হল রুমে এ সংবর্ধনার আয়োজন করেন, হাটহাজারী জাতীয়তাবাদী প্রবাসী পরিষদ।

ছাত্রনেতা জাকারিয়া রাশেদের পরিচালনায় ও সংগঠনের সহ সভাপতি আবুল হাশেমের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আমিরাত বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও দুবাই বিএনপির আহবায়ক মুহাম্মদ রফিকুল আলম রফিক।

প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, আমিরাত বিএনপির সদস্য এস এম মোদাচ্ছের শাহ, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, আমিরাত বিএনপির সদস্য নাছির উদ্দিন চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি হিসাবে আরো উপস্থিত ছিলেন, আমিরাত বিএনপির সদস্য ও দুবাই বিএনপির সদ্যস সচিব মুজিবুল হক মন্জু, দুবাই বিএনপির সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক জামাল উদ্দিন কন্ট্রকটার, আমিরাত বিএনপি নেতা ও আজমান যুবদলে সভাপতি এহাসান চৌধুরী, দুবাই বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক আজিম তালুকদার, দুবাই বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি মনছুর আলম, দুবাই বিএনপি সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান আহবায়ক কমিটির সিনিয়র সদস্য হুমায়ন কবির সুমন, লোকমান হোসেন, শহিদুল ইসলাম, সেলিম আজদ মুন্না, দুবাই সিটি বিএনপির সভাপতি এরশাদ কন্ট্রকটার, দুবাই আহবায়ক কমিটির সদস্য ভিপি ইলিয়াস, দিদারুল আলম, চটগ্রাম উত্তর জেলা যুবদলের সহ -সম্পাদক আমজাদ হোসেন সুমন, হাটহাজারী পৌরসভা সেচ্ছাসেবক দল সভাপতি আব্দু সালাম, সাতকানিয়া লোহাগড়া জাতীয়তাবাদী পরিষদের আহবায়ক মোস্তাফিজুর রহমান, সদস্য সচিব আনছার, যুগ্ন আহবায়ক সুমন বিন হোসেন,আব্দুল খালেক ইমন, দুবাই বিএনপি নেতা নেজাম উদ্দিন, ব্যাংকার ইলিয়াছ, আরিফ তালুকদার, ফারুক, তৌহিদ, আল আবির বিএনপির নেতা আব্দুর ছাত্তার, ওসমান, রহিম, দেলোয়ার, শহিদুল আলম মামুন, এস ও ওসমান।

সালাউদ্দীন আলীর ভূয়সী প্রশংসা করে বক্তারা বলেন, করোনাকালীন সময়ে স্বাস্থ্য খাতে তিনি যে অবদান রাখলেন তার প্রমাণ স্বরূপ আজকের অ্যাওয়ার্ড। তিনি শুধু হাটহাজারীর গর্ব নয় বাংলাদেশের গর্ব, তার এ সাফল্য লাভ গোটা জাতির জন্যই একটি বিশেষ অর্জন ও সফলতা।

প্রধান অতিথি বক্তব্য রফিকুল আলম বলেন সালাউদ্দিন আলী একজন তরুণ মেধাবী সংগঠক ও উদ্যেক্তা। তার সফলতার সুনাম দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও প্রশংসা অর্জন করেছে। সালাউদ্দিন আলী চটগ্রামের গর্ব। আমরা আশাবাদী এই তরুণদের হাত ধরে এগিয়ে যাবে আগামীর বাংলাদেশ। আগামীর চট্টগ্রাম তথা হাটহাজারী।আমি উত্তর উত্তর সফলতা কামনা করি।

সংবর্ধিত অতিথি সালাউদ্দীন আলী বলেন, করোনাকালিন সময়ে আমরা টাকার চিন্তা করিনি, আগে মানুষের জীবনের চিন্তা করেছি। করোনা মোকাবিলায় সঠিকভাবে কাজ করায় আমরা আজ বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হচ্ছি। আজ আমাকে যেভাবে সংবর্ধনা দেয়া হলো এটি আমি গোটা চিকিৎসক, নার্স ও চিকিৎসা খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের পক্ষে গ্রহণ করে সম্মানিত বোধ করছি। আজ যেভাবে আমাকে সম্মান দেয়া হল সেজন্য আমি আপনাদেরকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।’

সালাউদ্দীন আরও বলেন, বাণিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গীর বাইরে এসে সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে চিকিৎসা সেবাকে সবার নাগালে পৌঁছে দিতে চিকিৎসাসেবায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ হিসাবে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে ১০০ শয্যা বিশিষ্ট সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সমৃদ্ধ মানবাতার সেবার কল্যানে তৈরি এশিয়ান স্পেশালাইজ হসপিটাল লিঃ যাহ এখন দেশ ও আন্তর্জাতিক মহলে প্রশংসিত, আমি তরুণ উদ্যেক্তা হিসাবে কোভিড কালিন সময়ে বিশেষ অবদান এবং হেলথ সেক্টরে অনন্য সাধারণ অবদান, মেধা, দক্ষতা, নৈপুণ্যতা, সার্ভিস প্রদানের স্বীকৃতি হিসেবে এই অ্যাওয়ার্ড অর্জন করি।

এই অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তির অথবা সম্মাননা পাওয়ার যোগ্য আমি নই, মানবিক মূল্যবোধ ও দায়িত্ববোধ থেকে এ কঠিন চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করছি। এই কাজে যখন সফল হই, তখনই নিজে তৃপ্তি পায়। দেশপ্রেম উদ্বুদ্ধ হয়ে একাজ করি বলে শত চ্যালেঞ্জের মুখে মুখি হয়ে বিষয়টি কখনো নিরুৎসাহিত হয়নি চেষ্টা করেছি ধ্যর্যদরে এগিয়ে যাওয়ার জন্য। আমাকে প্রদত্ত এ বর্ষসেরা তরুণ উদ্যেক্তা হিসাবে কোভিড কালিন সময়ে বিশেষ অবদান এবং চিকিৎসা খাতে অনন্য সাধারণ অবদান, মেধা, দক্ষতা, নৈপুণ্যতা, সার্ভিস প্রদানের স্বীকৃতি হিসেবে প্রাপ্ত পুরস্কার স্বরুপ এশিয়ান স্পেশালাইজড হসপিটালের সম্মানিত পরিচালকগন ও সকল কর্মকতা ও কর্মচারী নিকট উৎসর্গ করে আমার পেশাগত জীবনে সফলতার জন্য সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করছি।

এতে মোনাজাত পরিচালনা করেন মৌলানা আব্দুর রহিম।