Hathazari Sangbad
হাটহাজারীরবিবার , ৯ জুলাই ২০২৩

দুবাই প্রবাসীরা এনআইডি পাচ্ছে সোমবার

অনলাইন ডেস্ক
জুলাই ৯, ২০২৩ ৩:৫৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

অবশেষে দুবাই প্রবাসীরা আগামীকাল সোমবার জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) হাতে পেতে যাচ্ছে। আগামী সোমবার (১০ জুলাই) প্রথমবারের প্রবাসী বাংলাদেশিদের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ শুরু হচ্ছে। এ দিন আনুষ্ঠানিকভাবে ভোটারদের হাতে এনআইডি তুলে দেওয়া হবে। এর ফলে উদ্যোগ নেওয়ার সাড়ে তিন বছর পর আমিরাতের প্রবাসী বাংলাদেশিরা প্রথমবারের মতো প্রবাসে থেকে এনআইডি সেবা পাচ্ছে।
 
নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব খান জানান, এর ফলে দেশের বাইরে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধনের নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে। ভবিষ্যতে এ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে মধ্যপ্রাচ্যসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে এ কাজের বিস্তৃতি ঘটবে।
তিনি জানান, প্রবাসী বাংলাদেশিরা বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠাতে চান। এনআইডি না থাকায় অনেকে হুন্ডির মাধ্যমে দেশে অবৈধ উপায়ে অর্থ পাঠান। এখন এনআইডি পেলে হুন্ডির পথ ছেড়ে বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠাবে, যা দেশের রিজার্ভ বাড়াতেও ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি এ সেবা মোবাইল ব্যাংকিংসহ নাগরিকদের নানা ধরনের কাজেও লাগবে। ইসির দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা প্রবাসী বাংলাদেশিদের হাতে এনআইডি তুলে দেওয়ার উদ্যোগ সফল হচ্ছে। এতে সম্মানিত প্রবাসীদের নানা প্রকার নাগরিক সেবা গ্রহণসহ রেমিট্যান্স পাঠানো যেমন সহজতর হবে, তেমনি দেশও অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হবে।
 
জানা যায়, সোমবার রাষ্ট্রদূত, কনসাল জেনারেলের উপস্থিতিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন নির্বাচন কমিশনার। যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে নিবন্ধন করা শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশিদের জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করা হবে। এ উপলক্ষ্যে নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব খানের নেতৃত্বে ইসি সচিবালয় এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে চার সদস্যের একটি টিম সংযুক্ত আরব আমিরাত যাচ্ছেন।
 
এর আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাসরত বাংলাদেশি নাগরিকদের ভোটার নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয় বর্তমান নির্বাচন কমিশন। এরই ধারাবাহিকতায় মে মাসে ইসির নিজস্ব টিমের (কারিগরি ও প্রশাসনিক) সহযোগিতায় দূতাবাস সংশ্লিষ্ট জনবলকে এ বিষয়ে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ, যন্ত্রপাতি স্থাপন, নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠা, স্থানীয় মোবাইল নম্বরে এসএমএস পাঠানোসহ প্রয়োজনীয় কার্যক্রম নেওয়া হয়। এরপর জুনে আবুধাবিতে বাংলাদেশ দূতাবাস ও দুবাইয়ে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের মাধ্যমে পরীক্ষামূলক কার্যক্রম চালু হয়।
১৫ বছর আগে ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়ন শুরুর সময় থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার করা ও এনআইডি দেওয়ার দাবি ওঠে। দীর্ঘদিন ধরে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার নিবন্ধন নিয়ে নানা ধরনের জটিলতা পেরিয়ে কে এম নূরুল হুদা কমিশন ২০১৯ সালের নভেম্বরে মালয়েশিয়ায় অনলাইন নিবন্ধনের কার্যক্রম শুরু করে। পরে করোনা মহামারিতে সেই উদ্যোগ থমকে যায়। কাজী হাবিবুল আউয়াল নেতৃত্বাধীন বর্তমান কমিশন আবার সেই কাজে গতি আনার উদ্যোগ নেয়। মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, সিঙ্গাপুর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য, মালদ্বীপে পাঁচ হাজারেরও বেশি নাগরিক এনআইডি পেতে আবেদন করেছে। এর মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পর পর্যায়ক্রমে প্রবাসে অন্যান্য দেশে এনআইডি সেবা দ্রুত চালুর প্রক্রিয়া চলবে।
 
ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাতে সফলভাবে পরীক্ষামূলক কাজটির পর আগামী এক বছরে অন্তত ১৫টি দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য সেবা শুরুর প্রচেষ্টা হবে। এর মধ্যে বেশি রেমিট্যান্স আসে এমন দেশগুলোকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। প্রবাসে লেমিনেটেড এনআইডি দেওয়া হবে। কারণ স্মার্টকার্ড ছাপানো হবে দেশে। প্রবাসী যখন দেশে ফিরবেন তখন স্মার্টকার্ড সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। ধীরে ধীরে ৪০টি দেশে এ সেবা চালুর পরিকল্পনা রয়েছে। বর্তমানে বিশ্বে ১৭৬টি দেশে ১ কোটি ৪৯ লাখের অধিক কর্মী কর্মরত রয়েছেন।