Hathazari Sangbad
হাটহাজারীসোমবার , ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩

জাতীয় দলেই আর থাকছেন না চাটগার নবাব তামিম ইকবাল

স্পোর্টস ডেস্ক:
ডিসেম্বর ২৫, ২০২৩ ৭:০৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জাতীয় দল থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা ওপেনিং ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল! নতুন বছরে তাকে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে রাখতে অনুরোধ করেছেন।

বিসিবির সিনিয়র পরিচালক ও জাতীয় দলের ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনায় থাকা স্ট্যান্ডিং কমিটি ক্রিকেট অপারেশন্স প্রধান জালাল ইউনুস দেয়া তথ্য এটি।

গতকাল রোববার বিকেলে স্থানীয় মিডিয়ার কাছে এ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন তিনি।

বলেছেন, ‘তামিমের নিজস্ব একটা পরিকল্পনা আছে। তার আগে যেন আমরা তাকে চুক্তিতে না রাখি। সে চেয়েছে এখন না রাখতে, পরে বিসিবি সভাপতির সাথে বসার পর পরিকল্পনা চূড়ান্ত করে সে আমাদের জানাবে যে, কী করতে চাচ্ছে।’

বিসিবির অন্যতম শীর্ষ এই কর্মকর্তার উদ্ধৃতি দিয়ে প্রচার করা এ খবরের পর তামিম ভক্ত-সমর্থক, আর বাংলাদেশের ক্রিকেট অনুরাগিদের প্রায় সবার মনেই ঘুরে-ফিরে একটি প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে। তামিম কি তাহলে জাতীয় দলের পক্ষে আর কোন ফরম্যাটে খেলতে চান না? যদি খেলতেই চাইবেন, তাহলে তাকে কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে রাখার প্রস্তাব কেন?

তামিম টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট থেকে অবসর নিয়েছেন এবং টেস্ট, ওয়ানডেতেও তিনি নিয়মিত নন। শেষ ওয়ানডে খেলেছেন বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে (২০২৩ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর)। আর শেষ টেস্ট ম্যাচে তামিমের দেখা মিলেছে গত এপ্রিলে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে।

গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসরের আগে অনেক নাটকের পর তামিম জানিয়ে দেন, তিনি আর লাল সবুজ জার্সি গায়ে এই ফরম্যাচে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করবেন না। এরপর হঠাৎ গত জুলাই মাসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়ে বসেন দেশের সব সময়ের এক নম্বর ওপেনার।

এরপর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পুনরায় ফিরে আসেন এবং আগস্টে ইংল্যান্ডে চিকিৎসা করিয়ে এসে এশিয়া কাপের আগে জানিয়ে দেন, ‘আমি আর ওয়ানডেতে অধিনায়কত্ব করবো না। শুধু ক্রিকেটার হিসেবে খেলবো।’

এরপর দল ঘোষণার আগে দেখা গেল ফিটনেসের কারণে বিশ্বকাপ স্কোয়াডেই নেই তামিম। পরে জানা গেল, অধিনায়ক সাকিব এবং কোচ হাথুরুসিংহের ইচ্ছেতেই বিশ্বকাপ খেলা হয়নি তামিমের।

এদিকে বিশ্বকাপের পরও আর মাঠে ফেরেননি তামিম। ইনজুরি কাটিয়ে বিপিএল দিয়ে মাঠে ফেরার ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন। ধারণা ছিল, বিপিএলের পর বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সাথে কথা-বার্তা বলে আবার টেস্ট এবং ওয়ানডে দলে ফিরবেন; কিন্তু এখন মনে হচ্ছে, সে সম্ভাবনাও সুদুর পরাহত। সম্ভবত আর জাতীয় দলের হয়ে মাঠে না ফেরার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করে ফেলেছেন তামিম।

এখন বিসিব সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন যদি তাকে বুঝিয়ে-সুঝিয়ে মাঠে ফিরতে রাজি করাতে পারেন, সেটা ভিন্ন কথা; কিন্তু এমনিতে তামিমের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার সম্ভাবনা খুব কম।

এদিকে ক্রিকেট পাড়ায় একটি গুঞ্জন ভেসে বেড়াচ্ছে। তাহলো, বিশ্বকাপ স্কোয়াডে না থাকা নিয়ে ভীষণ মনোক্ষুণ্ন তামিম ইকবাল। তাঁর ধারণা কোচ হাথুরুসিংহের কারসাজিতেই তার বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি।

তাই তিনি হাথুরুর অধীনে জাতীয় দলে খেলার আশাও ছেড়ে দিয়েছেন। ক্রিকেট পাড়ায় চাওর হয়ে গেছে, তামিম নাকি বোর্ডকে বিশেষ করে বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপনকে অনুরোধ করেছেন, হাথুরুকে কোচের পদ থেকে সরিয়ে দিতে। হাথুরু না থাকলে তিনি ওয়ানডে-টেস্টের হয় ২ ফরম্যট না হয় অন্তত এক ফরম্যাটে জাতীয় দলে থাকতে পারেন।

কিন্তু হাথুরুর সাথে বোর্ডের চুক্তি আছে ২০২৫ সাল পর্যন্ত। তাই তাকে এখন বিদায় করার অর্থ প্রচুর পরিমাণ অর্থদণ্ডের মুখোমুখি হওয়া। জানা গেছে, বিসিবির মাথায় তাই হাথুরুকে পদচ্যুত করার কোনো পরিকল্পনা নেই। সে কারণেই নাকি তামিম তাকে কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে রাখতে বলেছেন।